‘রামসাগর’ চালুর দাবিতে ‘লালমনিরহাট এক্সপ্রেস’ অবরোধ

0
গাইবান্ধা: উত্তরাঞ্চলের বহুল জনপ্রিয় মেইল ট্রেন ‘রামসাগর এক্সপ্রেস’ পুনরায় চালুর দাবিতে গাইবান্ধার সাঘাটা উপজেলার বোনারপাড়া রেলওয়ে স্টেশনে মিছিল সমাবেশ ও লালমনিরহাট-রংপুর রুটে ঢাকাগামী লালমনি এক্সপ্রেস ট্রেন ৩০ মিনিট অবোরোধ করেছে স্থানীয়রা। 
শনিবার (০৮ ফ্রেব্রুয়ারি) দুপুর ১২টা ২২ মিনিট থেকে ১২টা ৫২ মিনিট পর্যন্ত এলাকাবাসীর ব্যানারে ঢাকাগামী লালমনি এক্সপ্রেস ট্রেনটি অবরোধ করে রাখা হয়। এসময় রেলওয়ের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তাদের আশ্বাসে ট্রেন অবরোধ তুলে নেওয়া হয় এবং আগামী বুধবার এক ঘণ্টা ঢাকাগামী সব ট্রেন অবরোধের কর্মসূচি ঘোষণা করা হয়। কর্মসূচি চলাকালে বক্তব্য দেন- উপজেলা যুবলীগের সাধারণ সম্পাদক নাছিরুল আলম স্বপন, গাইবান্ধা জেলা মুক্তিযোদ্ধা কমান্ডের ডেপুটি কমান্ডার গৌতম চন্দ্র মোদক, উপজেলা আওয়ামী লীগ নেতা নাজমুল হুদা দুদ, মুক্তিযোন্ধা ওয়ারেছ আলী প্রধান প্রমুখ। বক্তারা বলেন, ২০১০ সালের ডিসেম্বর মাসে চালু করা হয় আন্তঃনগর রামসাগর এক্সপ্রেস ট্রেনটি। প্রতিদিন সকাল ৬টায় বোনারপাড়া রেলওয়ে জংশন স্টেশন থেকে দিনাজপুরের উদ্দেশে ছেড়ে যেত রামসাগর এক্সপ্রেস। বোনারপাড়া জংশন থেকে গাইবান্ধা সদরের বাদিয়াখালী, ত্রিমোহিনী, গাইবান্ধা ও কুপতলা হয়ে কামারপাড়া, নলডাঙ্গা, বামনডাঙ্গা, হাসানগঞ্জ স্টেশন পেরিয়ে কাউনিয়া ও রংপুরের উপর দিয়ে পার্বতীপুর হয়ে দিনাজপুর পর্যন্ত মাত্র সাড়ে চার ঘণ্টায় চলাচল করতো রামসাগর। চালুর মাত্র ৫ মাসের মধ্যে ২০১১ সালের মে মাসে জনবল সংকটসহ বিভিন্ন কারণ দেখিয়ে হঠাৎ করে বন্ধ করে দেওয়া হয় রামসাগর এক্সপ্রেস। ফলে আবারও বিপাকে পড়তে হয় গাইবান্ধাসহ রংপুর ও দিনাজপুরের মানুষকে। রামসাগর ট্রেনটি চালু হলে গাইবান্ধাসহ কয়েক জেলার মানুষের দুর্ভোগ লাঘব হবে। আগামী বুধবারের মধ্যে ট্রেনটি চালু করা না হলে ঢাকা থেকে বোনারপাড়া স্টেশন হয়ে লালমনিরহাট ও রংপুর রুটের সকল ট্রেন বুধবার এক ঘণ্টা অবরোধ করে রাখা হবে বলে জানান বক্তার। রেলওয়ে লালমনির হাট ভিডিশনাল ট্রাফিক কর্মকর্তা স্নেহাশীষ দাস সাংবাদিকদের জানান, আমি ঘটনা স্থলে আমি গিয়েছিলাম অবরোধকারীদের সঙ্গে কথা হয়েছে। বিষয়টি ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তাকে জানানো হবে।

মতামত